Sale!

গাঁদা ফুলের বাগান । বাড়ির সামনে ফুলের বাগান

Original price was: 1,500.00৳ .Current price is: 1,150.00৳ .

সরাসরি কিনতে ফোন করুন: 01622913640

>> সারাদেশে ক্যাশ অন ডেলিভারি করা হয় !

>> ডেলিভারি খরচ ঢাকার মধ্যে 60 ঢাকার বাইরে  ১০০ টাকা !

>প্রোডাক্ট হাতে পেয়ে চেক করে মূল্য পরিশোধ করতে পারবেন !

>> ডেলিভারি খরচ সাশ্রয় করতে একসাথে কয়েকটি প্রোডাক্ট অর্ডার করুন !

983 in stock

SKU: (2)ম্যাজিক কনডম কোডঃ 118 Category: Tags: ,

Description

গাঁদা ফুলের বাগান । গাঁদা ফুলের বাগান একটি সুন্দর এবং রঙিন দৃশ্য হতে পারে। গাঁদা ফুল বিভিন্ন আকার, রঙ এবং আকারে আসে, তাই আপনি আপনার বাগানের জন্য নিখুঁত জাত খুঁজে পেতে পারেন। এগুলি রোপণ করাও সহজ এবং অল্প রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজন হয়, তাই এগুলি বাগানির জন্য একটি দুর্দান্ত পছন্দ যাদের বেশি সময় নেই।

গাঁদা ফুলের বাগানের জন্য কিছু ধারণা এখানে দেওয়া হল:

  • একটি রঙের বিস্ফোরণ তৈরি করুন বিভিন্ন রঙের গাঁদা ফুল মিশিয়ে।

  • একটি প্যাটার্ন তৈরি করুন বিভিন্ন উচ্চতার গাঁদা ফুল ব্যবহার করে।

  • একটি ছোট বাগানের জন্য, একটি কন্টেইনার বাগান তৈরি করুন

  • আপনার বাগানে আকর্ষণ করুন প্রজাপতি এবং মৌমাছি, কিছু গাঁদা ফুল রোপণ করুন।

গাঁদা ফুল রোপণ করার সময়, পূর্ণ রোদে এমন একটি জায়গা চয়ন করুন। মাটি ভালভাবে নিষ্কাশিত হওয়া উচিত। বীজ বসন্তে বপন করুন, বা গ্রীষ্মের শুরুতে চারা রোপণ করুন। গাছগুলি নিয়মিত জল দিন, বিশেষ করে গরম আবহাওয়ায়। ম্লান ফুল নিয়মিতভাবে মুছে ফেলুন যাতে নতুন ফুল ফোটার জন্য উৎসাহিত করা যায়।

গাঁদা ফুলের বাগান উপভোগ করার জন্য এখানে কিছু টিপস রয়েছে:

  • ফুলগুলিকে ভেতরে আনুন একটি উজ্জ্বল ফুলের ব্যবস্থা তৈরি করতে।
  • ফুল শুকিয়ে ব্যবহার করুন পোটপুরি বা ক্রাফ্ট প্রকল্প তৈরি করতে।
  • ফুলের চা তৈরি করুন
  • ফুল খান। গাঁদা ফুল খাওয়া নিরাপদ এবং এগুলিতে একটি সামান্য লেবুর স্বাদ রয়েছে।

গাঁদা ফুলের বাগান একটি সুন্দর এবং উপভোগ্য উপায় আপনার বাড়িতে রঙ এবং আকর্ষণ যোগ করতে। সামান্য যত্ন সহ, আপনি গ্রীষ্মের সময়কালে ফুল উপভোগ করতে পারেন।

গাঁদা ফুলের বাগান: রঙিন সৌন্দর্যের এক অপার সমাহার

গাঁদা ফুল, যার বৈজ্ঞানিক নাম ট্যাগেটিস এরেক্টা, বাংলাদেশের একটি অতি পরিচিত এবং জনপ্রিয় ফুল। এর উজ্জ্বল রঙ, সুন্দর আকার এবং সহজ চাষের জন্য এটি সকলের কাছেই সমাদৃত। গাঁদা ফুল শুধু বাগানের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে না, বরং এর औषধি গুণাবলীও রয়েছে।

গাঁদা ফুলের কিছু জনপ্রিয় জাত:

  • আফ্রিকান গাঁদা: বড়, ঝলমলে ফুল যা বিভিন্ন রঙে পাওয়া যায়।
  • ফ্রেঞ্চ গাঁদা: ছোট, মিষ্টি সুগন্ধিযুক্ত ফুল যা সাধারণত হলুদ, কমলা বা লাল রঙের হয়।
  • গুলদাউদি গাঁদা: pompom-like ফুল যা বিভিন্ন রঙে পাওয়া যায়।

গাঁদা ফুলের বাগান তৈরির টিপস:

  • জায়গা নির্বাচন: গাঁদা ফুল পূর্ণ রোদে ভালো জন্মে। তাই, বাগানের এমন জায়গা নির্বাচন করুন যেখানে সারাদিন রোদ থাকে।
  • মাটি: গাঁদা ফুলের জন্য ভালোভাবে নিষ্কাশিত, দোঁয়াশ মাটি প্রয়োজন।
  • রোপণ: বীজ বপনের জন্য বসন্তকাল বা শীতকালের শেষভাগ সবচেয়ে ভালো সময়। চারা রোপণ করতে চাইলে গ্রীষ্মের শুরুতে করুন।
  • জল: নিয়মিত জল দিন, বিশেষ করে গরমের সময়।
  • সার: নিয়মিত সার প্রয়োগ করুন।
  • ছাঁটাই: নিয়মিত ম্লান ফুল ছাঁটাই করে ফেলুন নতুন ফুল ফোটার জন্য উৎসাহিত করুন।
  • পোকামাকড়: গাঁদা ফুল পোকামাকড় প্রতিরোধী হলেও, মাঝে মাঝে এফিড, থ্রিপস, এবং সাদা মাছির আক্রমণ হতে পারে। নিয়মিত বাগান পর্যবেক্ষণ করে এসব পোকামাকড়ের আক্রমণ দেখা গেলে দ্রুত ব্যবস্থা নিন।

গাঁদা ফুলের ব্যবহার:

  • সৌন্দর্যবর্ধনে: গাঁদা ফুলের উজ্জ্বল রঙ বাগান, বাড়ি, এবং অনুষ্ঠানের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে।
  • ঔষধি গুণাবলী: গাঁদা ফুলের অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি, অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ফাঙ্গাল গুণাবলী রয়েছে।
  • খাদ্য: গাঁদা ফুলের পাপড়ি খাবারে রঙ এবং স্বাদ যোগ করতে ব্যবহার করা হয়।
  • পোকামাকড় প্রতিরোধক: গাঁদা ফুলের গন্ধ অনেক পোকামাকড়কে দূরে রাখে।

গাঁদা ফুলের বাগান আপনার বাড়ি এবং আশেপাশের পরিবেশকে

 

বাড়ির সামনে ফুলের বাগান

বাড়ির সামনে ফুলের বাগান তৈরি করার সময়, আপনার নিম্নলিখিত বিষয়গুলি বিবেচনা করা উচিত:

  • আপনার বাড়ির স্থাপত্য: ফুলের বাগানটি এমনভাবে ডিজাইন করা উচিত যা আপনার বাড়ির স্থাপত্যের সাথে পরিপূরক হয়। উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনার বাড়ির ঐতিহ্যবাহী স্থাপত্য থাকে, তাহলে আপনি গোলাপ, লিলি এবং ডেফোডিলের মতো ঐতিহ্যবাহী ফুল ব্যবহার করতে পারেন। যদি আপনার বাড়ির আধুনিক স্থাপত্য থাকে, তাহলে আপনি অর্কিড, ব্রোমেলিয়াদ এবং সাকুলেন্টের মতো আরও আধুনিক ফুল ব্যবহার করতে পারেন।

     

  • আপনার বাগানের আকার: আপনার বাগানের আকার আপনি যে ধরণের ফুল এবং কতগুলি রোপণ করতে পারবেন তা নির্ধারণ করবে। যদি আপনার একটি ছোট্ট বাগান থাকে, তাহলে আপনি কয়েকটি নির্বাচিত ফুলের উপর ফোকাস করতে চাইতে পারেন। যদি আপনার একটি বড় বাগান থাকে, তাহলে আপনি বিভিন্ন ধরণের ফুল রোপণ করতে পারেন।

  • আপনার জলবায়ু: আপনি যে ধরণের ফুল রোপণ করবেন তা নির্ধারণ করবে আপনার এলাকার জলবায়ু। কিছু ফুল উষ্ণ আবহাওয়া পছন্দ করে, অন্যরা ঠান্ডা আবহাওয়া পছন্দ করে। আপনার এলাকার নার্সারি বা বাগান কেন্দ্রের কর্মীরা আপনাকে এমন ফুল নির্বাচন করতে সাহায্য করতে পারে যা আপনার জলবায়ুতে বৃদ্ধি পাবে।

  • আপনার বাজেট: ফুলের বাগান তৈরি করা ব্যয়বহুল হতে পারে, তবে এটি আপনার বাজেটের সাথে মানানসই করার উপায় রয়েছে। আপনি বীজ থেকে ফুল রোপণ করতে পারেন, যা কাটা ফুল কেনার চেয়ে অনেক সাশ্রয়ী মূল্যের। আপনি স্থানীয় নার্সারি বা বাগান কেন্দ্র থেকে ছাড় বা বিক্রয়ের জন্য ফুলও খুঁজে পেতে পারেন।

একবার আপনি এই বিষয়গুলি বিবেচনা করলে, আপনি আপনার বাগানের নকশা শুরু করতে পারেন। আপনি অনলাইনে বা বাগানের বইয়ে অনুপ্রেরণা খুঁজে পেতে পারেন। আপনি একজন পেশাদার ল্যান্ডস্কেপ ডিজাইনারের সাথে পরামর্শ করতে চাইতে পারেন যিনি আপনাকে একটি বাগান তৈরি করতে সাহায্য করতে পারেন যা আপনার নির্দিষ্ট চাহিদা এবং পছন্দগুলির সাথে মানানসই।

আপনার বাড়ির সামনে একটি ফুলের বাগান তৈরি করার জন্য এখানে কিছু নির্দিষ্ট ধারণা রয়েছে:

  • একটি রঙিন প্রবেশদ্বার তৈরি করতে আপনার সামনের দরজার পাশে ফুল রোপণ করুন।

পড়ুনঃম্যাজিক কনডম কিনতে এখনই ক্লিক করুন

Reviews

There are no reviews yet.

Be the first to review “গাঁদা ফুলের বাগান । বাড়ির সামনে ফুলের বাগান”

Your email address will not be published. Required fields are marked *